ঘরে বসেই জাতীয় পরিচয়পত্রের আবেদন, তথ্য ও ছবি পরিবর্তন করুন অনলাইনেই!

0
31
জাতীয় পরিচয়পত্রের আবেদন

নিত্যদিনের নানা কাজে ভোটার আইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্রের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। ২০০৮ সালে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন দেশের সব প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিককে প্রথমবারের মতো ছবিসহ জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়। একই সঙ্গে ভোটার তালিকাও হালনাগাদ করা হয়।দেশব্যাপী এই প্রকল্প পরিচালনা এবং তথ্য সংরক্ষণের সময় বেশ কিছু ভুল তথ্য চলে এসেছে বা এই কয়েক বছরে অনেকের ঠিকানাসহ অন্যান্য তথ্যে পরিবর্তন এসেছে।

তাই ,এখন থেকে অনলাইনেই জাতীয় পরিচয়পত্রের যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করা যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন, নতুন ভোটার হিসেবে নিবন্ধন আবেদন, হারিয়ে যাওয়া বা নষ্ট হওয়া পরিচয়পত্র নতুন করে তোলা, ছবি বা স্বাক্ষর পরিবর্তনের আবেদন সবকিছু হবে এখন এক ক্লিকেই।নির্বাচন কমিশনের services.nidw.gov.bd এই ওয়েবসাইটে গিয়ে এখন ঘরে বসেই সবকিছু করতে পারবেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারিরা। পাশপাশি বিদ্যমান প্রক্রিয়াও অব্যাহত থাকবে।

অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্রের কি কি পরিবর্তন আপনি নিজেই করতে পারবেন ?

১. নতুন ভোটার হিসেবে নিবন্ধন আবেদন
২. নিবন্ধনের মাধ্যমে নিজের হিসাব খোলা
৩. নিজস্ব তথ্য ও ভোটার কেন্দ্রের তথ্য
৪. জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন যেমন তথ্য পরিবর্তন, সংশোধন ও হালনাগাদ
৫. ছবি বা স্বাক্ষর পরিবর্তনের আবেদন
৬. হারিয়ে যাওয়া বা নষ্ট হওয়া পরিচয়পত্র নতুন করে তোলা
৭.ভোটার এলাকা স্থানান্তর
সর্বুপরি ,পুনঃমূদ্রণ করতে পারবেন।

সরাসরি https://services.nidw.gov.bd/ ঠিকানা থেকে এই অনলাইন সেবাগুলো পাওয়া যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য হালনাগাদ করার জন্য নিবন্ধন করে পাসওয়ার্ড সংগ্রহ করতে হবে। নিবন্ধন করার সময় জাতীয় পরিচিতি (এনআইডি) নম্বর, জন্মতারিখ মোবাইল ফোন নম্বর, ই-মেইল, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানায় উল্লেখিত বিভাগ, জেলা, থানা নাম লিখে নিবন্ধন করতে হবে। এরপর ওই নির্দিষ্ট মোবাইল ফোন নম্বরে একটি ‘অ্যাকাউন্ট অ্যাকটিভেশন কোড’ পাঠানো হবে।

নিবন্ধনের পরবর্তী ধাপে এই কোড লেখা হলে নিবন্ধন সম্পন্ন হবে। পরবর্তী সময়ে এই সাইটে ঢুকতে (লগ–ইন) হলে এনআইডি নম্বর, জন্মতারিখ ও পাসওয়ার্ড লিখতে হবে। এখানে খেয়াল রাখতে হবে যে এনআইডি নম্বর যদি ১৩ সংখ্যার হয়ে থাকে তবে মূল এনআইডি নম্বরের আগে জন্মসালটি লিখতে হবে। লগ–ইন করার পর তথ্য, ঠিকানা, ভোটার এলাকা, ছবি পরিবর্তনের জন্য আলাদা আলাদা অনুচ্ছেদ রয়েছে। এ ছাড়া আইডি কার্ড পুনর্মুদ্রণ এবং নতুন ভোটারের আবেদনের হাল অবস্থা জানারও সুযোগ রয়েছে এই প্যানেলে।

আরও পড়ুনঃ   বলিউড ছেড়ে ইসলাম প্রচারক!

অনলাইনে আবেদনের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশন অফিসের মূল কার্যালয় থেকে অথবা স্থানীয় থানা/উপজেলা অফিস থেকে আবেদন করেও হারানো কার্ড আবার উত্তোলন করা অথবা নতুন আবেদন করার ব্যবস্থাও রয়েছে।এ ফরমগুলো পাওয়া যাবে https://services.nidw.gov.bd/forms ঠিকানায়।

নতুন আবেদন ও তথ্য হালনাগাদ-সংক্রান্ত সাধারণ কিছু প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে https://services.nidw.gov.bd/faq/ ঠিকানার ওয়েবসাইটে।

Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

fifteen + 1 =