সাবধান ! ফেসবুকে যেভাবে হারাচ্ছেন আপনার ঈমান আমল ও আকিদা

0
156
ফেসবুকে
ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া সেই ছবি

ফেসবুকে ইদানিং একটি ট্রেন্ড হয়ে দাড়িয়েছে,  ‘ এই ছবির জন্য কয়টা লাইক, এই হিজাবী বোনের জন্য কতগুলা দোয়া- ভালোবাসা’  ইত্যাদি। সেই প্রতিযোগীতায় ফেসবুকে থাকা  ‘ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা’ ফেসবুকে হয়তো অশেষ পুন্যেরা আশায় কোন কিছু না বুঝেই হুমড়ি খেয়ে হাজারো লাখো লাইক, কমেন্ট আর শেয়ার করে ‘পুন্যের ভাগীদার’ হতে এক সেকেন্ড দেরী করেননা।

এমনি প্রতিযোগিতায় ফেসবুক জুড়ে ইদানিংকালে ভাইরাল হয়ে পড়েছে এক বিখ্যাত পর্নস্টারের হিজাব পরিহিত একটি ছবি। ছবিটিতে জনৈক এক ফেসবুকার (হয়তো উদ্দেশ্যপ্রনোদিত ভাবেই, নয়তো না জেনেই ) হাসিমাখা হিজাব পরিহিতা ঐ পর্ণস্টারের ছবিতে একটি ক্যাপশান জুড়ে দেন ‘এই হিজাবি, দ্বীনদার, খোদাভীরু, মুসলিম বোনটির জন্য ক’টি লাইক হবে ? ?’

ফেসবুকে
ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া সেই ছবি

ব্যাস এরপরই কিছু না বুঝে শুরু হয়ে যায় লাইক,শেয়ার আর কমেন্টের ফুলঝুড়ি।  এই পেজ সেই পেজ আর এক ওয়াল থেকে অন্য ওয়াল থেকে প্রচুর ইম্প্রেশানের ফলে মুহূর্তেই ছড়িয়ে পরে ফেসবুকের হোমপেজ জুড়ে ছবিটি ।

বাস্তবতা হলো এই ছবিটি একজন বিখ্যাত পর্ণস্টারের। ‘মিয়া খলিফা’  নামের এই বিখ্যাত পর্ণ স্টারের জন্ম ১০ ফেব্রুয়ারী ১৯৯৩ ইং লেবাননের বৈরুত শহরে। পরবর্তীতে এই মিয়া খলিফার পরিবার আমেরিকায় বাস গড়ে । কারো এ বিষয়ে সন্দেহ থাকলে অবশ্যই গুগলে গিয়ে ‘ miya khalifa porn star’ লিখে সার্চ করে ছবির চেহারা দেখে মিলিয়ে নিতে পারেন,  বাস্তবতা আসলে কি ।

পর্ন জগতে নানা টাইপের বিকৃতি আছে। পর্ণের দিকে গ্রাহকদের টানতে খ্রিস্টান পাদ্রি, নান, বৌদ্ধ ভিক্ষু হতে শুরু করে নানা টাইপের রোল প্লে করে পর্ন স্টারদের অভিনয় আসলে নতুন কিছু না। সেই তালিকায় নতুন যোগ হয়েছে মুসলিম হিজাবি নারীদের নিয়ে পর্ন বানানো। এটা অমুসলমানদের দারা আপনার ঈমান আমল ও আকিদা’  নষ্টের একটি  একটি কৌশলও বলা যায়।

ইন্টারনেটের এই বিশাল অদ্ভুত জগতটায় আসলে নানারকমের ফাঁদ থাকবে, অনেকেই আপনার ঈমান নষ্টের প্রচেষ্টায় ওত পেয়ে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। বিচলিত না হয়ে বরং সেই ফাঁদে পা না রেখে আপনাকেই হতে হবে সতর্ক । না জেনে না বুঝে কোন ছবি অথবা পোষ্টে নিজেকে ‘সাচ্চা মুসলমান’ পরিচয় দিতে  উঠে পরে লাগবার প্রবনতা পরিহার করুন। আপনার ঈমান আপনারই রক্ষা করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ   ঈমান ও আকিদাহ সম্পর্কে ১৫০টি প্রশ্নোত্তর জেনে নিন

সাবধান থাকুন, ভালো থাকুন, আর অপপ্রচার থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রেখে অন্যদেরকেও সতর্ক করুন ।

বিঃ দ্রঃ : এই ছবি নিয়ে গত কদিন ধরেই ‘মুসলমানদের বোকামী’ উল্লেখ করে প্রগতিশীল ঘরানার অনেককেই বিরুপ মন্তব্য করতে দেখা গেছে। একই সাথে এই ছবিতে হাজার হাজার লাইক,শেয়ার ও মন্তব্যের বিষয়টিও হাস্যরসের খোরাক হয়েছে অনেকের কাছেই। যারা এই ফিচারটি পড়ছেন, তারা দয়া করে ছবিটি ভুলে কাউকে শেয়ার করতে দেখলে মুছে ফেলতে অনুরোধ করুন।

Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 + 4 =